Blog

Keep up to date with the latest news
একজন কন্টেন্ট রাইটার কিভাবে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে  (চ্যাপ্টার ২)

একজন কন্টেন্ট রাইটার কিভাবে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে  (চ্যাপ্টার ২)

Spread the love

 

আমার পূর্ববর্তী ব্লগে আমি আলোচনা করেছিলাম “একজন কন্টেন্ট রাইটার কিভাবে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে”, যেটিকে আমি চ্যাপ্টার ১ এ রেখেছিলাম। আর্টিকেলটি বড় হয়ে যাবে এবং এত বড় আর্টিকেল পড়তে গেলে আপনাদের একঘেয়ামি লেগে যেতে পারে তাই সম্পূর্ণ আর্টিকেলটি আমি দুই চ্যাপ্টারে বিভক্ত করেছি। আজ আমরা চ্যাপ্টার ২ এ বাকি অংশ গুলো জানবো। যারা চ্যাপ্টার ১ পড়েন নি তারা আগে ওটা পড়ে নিন তার পর এই আর্টিকেলটি কন্টিনিউ করুন, না হয় আগামাথা কিছুই বুঝবেন না। চলুন আলোচনা করা যায় বাকি অংশগুলো নিয়ে। 

——————————————

 

কিভাবে ব্লগের জন্য এডসেন্স এর এপ্রোভাল পাওয়া যায়? 

আপনি কি এই বিষয় নিয়ে চিন্তিত যে কিভাবে গুগল এডসেন্স এ অ্যাপ্রভাল পাবেন? 

🔸১ – আমি আমার পূর্ববর্তী আলোচনায় আপনাদের বলেছিলাম যে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম করার জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি ইনফরমেটিভ ওয়েবসাইট এর দরকার পড়বে। আপনার যদি একটি আইক্যচি, কোয়ালিটিফুল এবং ইনফরমেটিভ ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনি গুগল এডসেন্স থেকে খুব সহজেই অ্যাপ্রভাল পেয়ে যাবেন। কেননা আপনার ওয়েবসাইটটি যদি ইনফরমেটিভ বা তথ্যবহুল না হয় তাহলে কোন ইউজার বা ভিজিটর ই সেটি পছন্দ করবে না। কেই বা চাইবে নিজের সময় গুলো নষ্ট করার জন্য। ভিজিটরদের মতই গুগল নিজেও এসব ধরনের ওয়েবসাইট কখনোই পছন্দ করেনা। 

গুগল যখন এনালাইজ করবে যে ভিজিটর রা আপনার ওয়েবসাইটে আসছে কারন আপনার ওয়েবসাইটটি অনেকে ইনফরমেটিভ তাহলে বেশ সহজেই আপনাকে গুগল এডসেন্স এর অ্যাপ্রভাল দিয়ে দেবে। তাই গুগল এডসেন্স এ অ্যাপ্রভাল পাওয়ার জন্য প্রথমেই আপনার একটি ইনফরমেটিভ ওয়েবসাইট এর দরকার। 

🔸২ – এরপর যে ব্যাপারটি সেটি হল প্রয়োজনীয় কিছু পেইজ আপনাকে ক্রিয়েট করতে হবে আপনার তৈরি করা ওয়েবসাইটের মধ্যে। যেমন এবাউট পেজ টাইটেল এ আপনি একটি পেইজ ক্রিয়েট করলেন যেখানে আপনার তথ্য থাকবে, আপনার সম্পর্কে আপনার ভিজিটররা অনেক কিছু জানতে পারবেন, আপনি কি বিষয় বা কোন সাবজেক্টে আপনার ওয়েবসাইটে ব্লগ প্রকাশ করছেন ইত্যাদি এইসব বিষয়ে আপনার ভিজিটররা টা খুব সহজেই জানতে পারবে। তাছাড়া রুলস এন্ড রেগুলেশন অথবা প্রাইভেসি পলিসি একটি পেজ ক্রিয়েট করলেন যেখানে দেওয়া থাকবে যে আপনার ব্লগে কি কি নিষিদ্ধ, আপনার ব্লগ দিয়ে কি কি করা যাবে, আপনার ব্লগ কিভাবে ব্যবহার করতে হবে, আপনার ব্লগে কোন ডাউনলোড লিঙ্ক আছে কিনা ইত্যাদি এইসব বিষয় নিয়ে থাকবে। না হয় আপনার ওয়েবসাইটে এই সমস্ত পেইজ গুলো না থাকলে ভিজিটররা কখনোই আপনার ওয়েবসাইটটি কে পছন্দ করবে না, আর যেমনটা বলেছিলাম ভিজিটররা পছন্দ না করলে গুগল ও পছন্দ করবে না এবং গুগল পছন্দ না করলে আপনি অ্যাপ্রভাল ও পাবেন না। 

🔸৩ – আপনার ওয়েবসাইটে অবশ্যই একটি কন্টাক্ট পেজ থাকতে হবে যেখানে আপনার ক্লায়েন্ট বা ভিজিটররা আপনার সাথে খুব সহজেই যোগাযোগ করতে পারবে অথবা আপনাকে নক দিয়ে যে কোন ইনফরমেশন কালেক্ট করে নিতে পারবে। 

এই সমস্ত পেজগুলো যদি আপনি ক্রিয়েট না করেন তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে একটি অপূর্ণতা রয়ে যাবে, তখন আপনার ওয়েবসাইটটি হয়ে দাঁড়াবে একটি খাপছাড়া ওয়েবসাইট। আর একটি খাপছাড়া ওয়েবসাইটকে কখনোই গুগোল অ্যাডসেন্সে অ্যাপ্রভাল দিবেনা। 

🔸৪ – সবসময় এটা মনে রাখবেন যে আপনার ওয়েবসাইটে কমপক্ষে দশ টি এবং সর্বোচ্চ বিশ টি কনটেন্ট থাকতে হবে। এছাড়া আপনার ওয়েবসাইটটিতে অবশ্যই নেভিগেশন দিবেন। বেশ চমৎকার একটি ছিমছাম ডিজাইন করবেন আপনার ওয়েবসাইট টিতে। খুব বেশি গর্জিয়াস ডিজাইন করলে অনেক সময় ভিজিটররা বিরক্ত বোধ করতে পারে, তাদের কাছে গ্যাদারিং মনে হতে পারে। কালার কম্বিনেশন জিনিসটা দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। তাই আপনার ওয়েবসাইটের এবং আপনার ব্র্যান্ড কালারের কম্বিনেশন চিন্তা করবেন। 

 

কিভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলবেন? 

অনেক কিছু তো জানা হয়ে গেল এখন কি আপনি এটা নিয়ে চিন্তিত যে গুগল এডসেন্স একাউন্ট খুলবো কিভাবে? বর্তমান যুগে কোন কিছুর সলিউশন পেতে হলে সবাই দৌড়ে চলে যায় ইন্টারনেটের কাজ। হাহা, তাই আপনিও একটি দৌড় লাগান ডিরেক্ট ইউটিউব এ। আমি বুঝিয়ে আপনাকে যতটুকু বা যতো দ্রুত বোঝাতে পারবো এরচেয়ে ভাল আপনি একটি ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখে বুঝতে পারবেন। তাই গুগল এডসেন্স একাউন্ট কিভাবে খুলবেন সেটি জানার জন্য youtube-এ অসংখ্য ভিডিও রয়েছে আপনি সেগুলো মনোযোগ সহকারে দেখতে পারেন। 

 

কিভাবে ব্লগে এড ব্যবহার করতে হয়? 

আপনার এডসেন্সের ড্যাশবোর্ডে গিয়ে বিভিন্ন সাইজের বিভিন্ন ক্যাটাগরির অ্যাড আপনি ক্রিয়েট করতে পারেন যখন গুগল এডসেন্স আপনাকে এড ব্যবহার করার জন্য পারমিশন দিবে।

আপনি যখনই বিভিন্ন ক্যাটাগরির বিভিন্ন সাইজের অ্যাড ক্রিয়েট করতে যাবেন তখনই তাৎক্ষণিকভাবে গুগল এডসেন্স আপনাকে একটি জাভাস্ক্রিপ্ট কোড দিবে। সেই কোডটি কপি করে আপনি আপনার ব্লগের সাইডবার অথবা পোষ্টের মধ্যে যেখানে যেখানে পেস্ট করে দেবেন ঠিক সেখানে সেখানেই গুগল আপনার কনটেন্ট ক্যাটাগরির সাথে ম্যাচ করে ভিজিটরদের এড শো করাবে। আমি প্রথমেই বলেছিলাম গুগল এডসেন্স এর যে ব্যাপারটা সেটি খুবই সহজ যদি আপনি বুঝতে পারেন। 

 

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করার পদ্ধতি 

এতক্ষণ তো জানলেন কিভাবে গুগল এডসেন্স একাউন্ট ক্রিয়েট করতে হয়, কিভাবে আবেদন করতে হয়, কি করলে অ্যাপ্রভাল পাওয়া যায়,  কিভাবে গুগল এডসেন্স থেকে ইনকাম হয়, কিভাবে গুগল এডসেন্স আপনাকে পেমেন্ট করবে ইত্যাদি এসব বিষয় নিয়ে, চলুন এখন জানা যাক, গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় করার পদ্ধতি।

গুগল এডসেন্স ছড়িয়ে রয়েছে পুরো বিশ্ব জুড়ে। পুরো বিশ্বে কতগুলো দেশই না রয়েছে। একেক দেশের কালচার একেক রকম। একেক দেশের কারেন্সি রেটও একেক রকম। তাই কোন ইউজার যখন আপনার আর্টিকেলটি পড়ার জন্য অথবা কোন ইনফরমেশন কালেক্ট করার জন্য আপনার ওয়েবসাইটে আসবে তখন আপনার ওয়েবসাইটে দেখানো এড এ কোন না কোন ভিজিটর তো অবশ্যই ক্লিক করবে। আর যখন গুগলের সেই অ্যাড এ ভিজিটরের ক্লিক করবে তখন কান্ট্রি হিসেবে বা দেশ ভেদে আপনাকে গুগল এডসেন্স নির্দিষ্ট পরিমাণে কিছু অর্থ পেমেন্ট করে দিবে।

আপনার মনে কি প্রশ্ন জাগছে যে গুগল এডসেন্স আমাকে কেন টাকা দিবে? বা আমাকে পেমেন্ট করলেও এতে গুগল এডসেন্স এর লাভটা কোথায়? খুবই সহজ একটি ব্যাপার এটি। গুগল এডসেন্স আপনাকে এই জন্যই পেমেন্ট করবে কারন আপনার ওয়েবসাইটে আপনার ভিজিটর যে এড টিতে ক্লিক করেছে সেই এড টির কোম্পানি তাদের সেবা বা প্রোডাক্ট প্রচার করার জন্য গুগল এডসেন্স কে টাকা দিয়েছে। তাদের থেকে টাকা নিয়ে এই গুগল এডসেন্স আপনাকে পেমেন্ট করছে। এই পুরো বিষয়ে গুগল এডসেন্স শুধুমাত্র একটি মাধ্যম। প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে গুগল এডসেন্স যতটুকু টাকা পেয়ে থাকে তার ৩২ শতাংশ টাকা গুগল নিজের কাছে রেখে দেয় এবং ৬৮ শতাংশ টাকা দিয়ে দেয় যাদের ওয়েবসাইটে প্রতিষ্ঠান বা কোম্পানিগুলোর এডস বা বিজ্ঞাপন দেখানো হয়।

 

আজ এ পর্যন্তই! আশা করি গুগল এডসেন্সের ব্যাপারে যা কিছু আছে সমস্ত কিছুর ব্যাপারে আপনাদের বেশ স্পষ্ট একটি ধারণা দিতে পেরেছি। 

 

শাকিল রহমান 

সিনিয়র কনটেন্ট রাইটার 

টিম “LIKHBO”

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *