Blog

Keep up to date with the latest news
একজন কন্টেন্ট রাইটার কিভাবে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে? (চ্যাপ্টার ১)

একজন কন্টেন্ট রাইটার কিভাবে এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে? (চ্যাপ্টার ১)

Spread the love

(চ্যাপ্টার ১)

 

আপনি একজন মানসম্মত এবং দক্ষ কনটেন্ট রাইটার। কিন্তু আপনি আর্নিং করতে পারছেন না অনেক ভাবে ট্রাই করার পরেও। এই সমস্যার সমাধান আসলে কি? পৃথিবীতে সব কিছুরই কোন না কোন সমাধান অবশ্যই রয়েছে, যা আমাদেরকে খুঁজে বের করতে হয়। যেমনটা কনটেন্ট রাইটার দের জন্য আমি খুঁজে বের করেছি। আমি যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি সেই বিষয়ে অনেকেই হয়তো অবগত রয়েছেন কিন্তু যারা অবগত নয় শুধুমাত্র তাদের জন্যই আমার এই কনটেন্টটি লেখা। 

আসুন আমরা জেনে আসি, কিভাবে একজন কনটেন্ট রাইটার এডসেন্স থেকে টাকা আয় করতে পারে। 

 

গুগল এডসেন্স কি?

এডসেন্স হলো সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং সিকিউর একটি এড নেটওয়ার্ক যেটির মাধ্যমে আপনি আপনার ব্লগ বা কনটেন্ট থেকে প্রায় হাজার ডলারের মতো ও ইনকাম করতে পারবেন। অনলাইনে অস্তিত্ব থাকা এড নেটওয়ার্ক গুলোর মধ্যে গুগল এডসেন্স ই সেরা এবং বিশ্ব বিখ্যাত। গুগল এডসেন্স এ বর্তমানে বাংলা ভাষাও সাপোর্ট করে, যা আগে করতো না। এর ফলে আপনি বাংলায় আর্টিকেল লিখেও বা ব্লগিং করেও ঘরে বসে বেশ ভাল আকারের এমাউন্ট ইনকাম করতে পারেন। আজকাল আমাদের দেশে কয়েক লক্ষ ডলার আসছে প্রতিমাসে এই গুগল এডসেন্স দ্বারা।

 

গুগল এডসেন্স থেকে টাকা আয় এর নিয়ম 

যতটা কঠিন ভাবছেন গুগল এডসেন্স কে ততটা কিন্তু কঠিন নয়, বেশ সহজ একটি বিষয়টি যদি আপনি বুঝতে পারেন। ধরুন আপনার একটি ব্লগ রয়েছে যেখানে মাঝে মাঝে গুগল এডসেন্স এর একটি জাভাস্ক্রিপ্ট কোড আপনাকে বসাতে হবে। তো আপনি আপনার ব্লগের যে জায়গাটিতে কোড বসাবেন সেই জায়গাটিতেই গুগল আপনার লেখা কনটেন্ট এর সাথে টপিক মিলিয়ে একটি বিজ্ঞাপন বা এড শো করবে, যখন ইউজার বা ভিজিটররা আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবে ইনফর্মেশন কালেক্ট করার জন্য এবং বিভিন্ন পেজে ঘুরাঘুরি করবে। এতে যদি ভিজিটররা আপনার দেখানো এড এ ক্লিক করে তাহলে তখন থেকেই শুরু হয়ে যাবে আপনার ইনকাম এবং আপনি সেখান থেকে ৬৮% পর্যন্ত কমিশন পাবেন।

 

কেন এই গুগল এডসেন্স?

আগেই বলা হয়েছে গুগল এডসেন্স হলো সম্পূর্ণ নিরাপদ এবং সিকুয়ার্ড একটি এড নেটওয়ার্ক যা বিশ্বের সবচেয়ে বড় একটি এড নেটওয়ার্ক। বেশ সঠিকভাবে গুগল এডসেন্স আপনাকে পেমেন্ট করে থাকে এবং আজ পর্যন্ত কখনোই গুগল এডসেন্স কাউকে ধোকা দেয়নি, দিবেও না। তাহলে চলুন জানা যাক, কেন এই গুগল এডসেন্স!

media.net এর মত অনলাইনে অস্থিত্ব থাকা আরও অনেক এড নেটওয়ার্ক ব্লগার রা ইউজ করে থাকে। কিন্তু আমি আগেই বলেছি যে অনলাইনে অস্তিত্ব থাকা সমস্ত এড নেটওয়ার্কের মধ্যে বিশ্বসেরা এবং বিখ্যাত একটি এড নেটওয়ার্ক হলো গুগল এডসেন্স। আপনি কি ভাবছেন, যে এই গুগল এডসেন্স থেকে আপনার আমার কি পরিমান ইনকাম হতে পারে বা তারা কি পরিমাণে পে করে থাকে? চিন্তার কিছু নেই, সেটা নিয়েও বলছি। 

গুগল এডসেন্স পুরো পৃথিবীর মানুষ ইউজ করে থাকে। এটি শুধুমাত্র কোন একটি দেশে সীমাবদ্ধ নয়, পুরো দুনিয়া জুড়েই এর প্রকোপ এবং বিস্তার রয়েছে। তাই বিভিন্ন দেশের ভিজিটর বা ইউজার দের উপর নির্ভর করে প্রতি ক্লিকে ০.০১ ডলার থেকে শুরু করে ৫০ ডলার এর উপর পর্যন্তও পে করে থাকে এই গুগল এডসেন্স। ব্যাপারটা অবিশ্বাস্য লাগলেও এটাই সত্য। এমন অনেক ব্লগার আছে যারা প্রতি মাসে ৫ থেকে ৬ কোটি টাকা পর্যন্ত ইনকাম করে থাকে শুধুমাত্র এই গুগল এডসেন্স দ্বারা। বেশ জনপ্রিয় একটি সাইট হলো mashable.com, এই সাইট টি গুগল এডসেন্স দ্বারা প্রতি মাসে ৫ কোটি টাকার উপরে ইনকাম করে থাকে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না, হাহা, প্রথমে আমারও হচ্ছিলো না। আপনি চাইলে এই বিষয় নিয়ে গুগলে আরো ডিটেইলড রিসার্চ করতে পারেন। 

 

গুগল এডসেন্স এর জন্য কি কি লাগবে?

গুগল এডসেন্স সম্পর্কে তো অনেক কিছুই জানলেন এখন এটা জানার পালা যে একটি এডসেন্স একাউন্ট তৈরি করার জন্য কি কি লেগে থাকে। 

যদি আপনি গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আর্নিং করতে চান এবং এডসেন্স অ্যাকাউন্ট খুলতে চান তাহলে প্রথমেই আপনাকে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট খুলতে হবে। এখানে ব্লগ বলতে বোঝানো হচ্ছে একটি ইনফরমেটিভ ওয়েবসাইট যে ওয়েবসাইটটিতে আপনি বিভিন্ন ইনফরমেশন কালেক্ট করার পর আপডেট করবেন এবং আপনার অডিয়েন্স বা ভিজিটররা আপনার ওয়েবসাইটে সেই ইনফরমেশন গুলোই খুজতে আসবে।  ভিজিটররা যখন তথ্য বা ইনফরমেশন খুঁজতে আসবে এবং রিলেটেড এড এর উপর ক্লিক করবে ঠিক তখনি আপনি ইনকাম করতে পারবেন। তাই বলা হয় এডসেন্স এর জন্য একটি ওয়েবসাইট থাকা অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রয়োজনীয় একটি জিনিস। 

এরপর এডসেন্স একাউন্টের জন্য আপনার দরকার পড়বে একটি ভ্যালিড ইমেইল এড্রেস এর। ভ্যালিড ইমেইল এড্রেস সেটিকেই বলা হয় যে ইমেইল টি ফোন নাম্বার ধারা ভেরিফাইড করা থাকে। আপাতত আর কোনো কিছুরই প্রয়োজন নেই এডসেন্স একাউন্ট ক্রিয়েট করার জন্য। এবার পালা হলো যে গুগল এডসেন্স এ এপ্লাই কিভাবে করবেন! ইউটিউবে অনেক অনেক ভিডিও পেয়ে যাবেন যেখান থেকে আপনি সম্পূর্ণ স্পষ্টভাবে অনেক ধারণাই নিতে পারবেন এ বিষয়ে। 

 

আজ এ পর্যন্তই! চ্যাপ্টার ২ এ আমরা গুগল এডসেন্স এর বাকি নিয়ম এবং জিনিসগুলো নিয়ে আলোচনা করব। 

 

শাকিল রহমান 

সিনিয়র কনটেন্ট রাইটার 

টিম “LIKHBO”

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *