Blog

Keep up to date with the latest news
প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন ও টিপস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন ও টিপস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

Spread the love

 

প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন কি?

কোন একটি পণ্যের প্রচারণার একটি অংশ হচ্ছে প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন। প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন এ মূলত প্রোডাক্ট সম্পর্কে বিস্তারিত একটি তথ্য এবং কাস্টমার সেই প্রোডাক্টটি কেন কিনবে সেই সম্পর্কে ধারণা দেওয়া হয়। ধরুন আপনি একটি মোবাইল কিনতে চাচ্ছেন। তো আপনি সোজা চলে গেলেন গুগলে। 

গুগোল এ যেয়ে আপনার পছন্দের মোবাইলটির ব্যাপারে আপনি সার্চ করলেন। কোন অনলাইন প্লাটফর্ম থেকে আপনি আপনার মোবাইল টি কিনলেন সেখানে আপনি চলে গেলেন। সেখানে যাওয়ার পর আপনি আপনার মোবাইল টি দেখতে পেলেন। ঠিক তার পাশেই বা নিচে দেখবেন মোবাইলটির ফিচার ল, মোবাইলটি কেমন পারফরম্যান্স দিতে পারবে, মোবাইলের ক্যামেরা কত মেগাপিক্সেল, মোবাইলের ব্যাটারি ওয়াট কত ইত্যাদি মোবাইলে ভিতরে যা যা থাকে সব দেওয়া আছে। এটি হচ্ছে একটি ডেসক্রিপশন। কারণ এখান থেকে আপনি কোন একটি প্রোডাক্ট সম্পর্কে সম্পূর্ণ তথ্য জানতে পেরেছেন। 

কোন মত একটা ডেসক্রিপশন লিখে দিলে যে সেটা সম্পূর্ণ এবং পরিপূর্ণ একটি ডেসক্রিপশন হয়ে যায় এমনটা কিন্তু নয়। ডেসক্রিপশন এ শুধুমাত্র প্রোডাক্ট সম্পর্কে বিস্তারিত একটি ধারণা দিলেই চলবে না। অনেক নিয়মকানুন মেনে বা টিপস ফলো করে একটি প্রোডাক্ট এর ডেসক্রিপশন লেখা উচিত, যেন যে ব্যক্তি ডেসক্রিপশন টি পড়বে সে ব্যক্তি টি যেন মনে করে সে আপনার সাথেই কথা বলছে। আসুন প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন লেখা নিয়ে কিছু টিপস জেনে আসা যাক। 

 

প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন লেখার কিছু টিপস

🔸আদর্শ প্রডাক্ট দেস্ক্রিপশন লেখার জন্য আপনি আপনার টার্গেটেড কাস্টমার দের সরাসরি সম্বোধন করুন। আপনি সেই ডেসক্রিপশনে এমনভাবে প্রশ্ন ও উত্তর চালিয়ে যান যেটি একজন কাস্টমার নিজের সাথে তা সম্পৃক্ত করতে পারে। আপনি যখন একটি প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন লিখবেন তখন আপনার,আপনি অথবা আপনাকে এই শব্দগুলো অবশ্যই ব্যবহার করুন। আদর্শ ক্রেতাদের উপর ফোকাস করে এবং বিশাল একটি গ্রুপকে টার্গেট করে প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন টি লিখুন। 

🔸লক্ষ্য করলে দেখতে পারবেন আমরা যখন একটি প্রডাক্ট দেস্ক্রিপশন লিখে থাকি তখন আমরা প্রোডাক্ট এর ফিচারগুলো কে একটু বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকি। কারণ আমরা মনে করি যে একজন কাস্টমার যখন প্রোডাক্ট এর ফিচারগুলো দেখতে পাবেন তখন কাস্টমার ফিচার গুলো দেখেই খুশি হয়ে যাবেন। এটি সম্পূর্ণ একটি ভুল ধারণা। এমনও তো হতে পারে যে সেই কাস্টমার টি আগে থেকেই প্রোডাক্টের ফিচার গুলো সম্পর্কে অবগত আছেন। নতুন কিছু জানার জন্যই হয়তো সে কাস্টমার টি হয়তো আপনার প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন টি পড়তে এসেছে। তাই শুধু ফিচারের উপর জোর না দিয়ে প্রোডাক্ট বেনিফিট এর উপরেও জোর দেওয়া উচিত। প্রোডাক্ট এর গুনাগুন আসলে কি, একজন কাস্টমার কিভাবে সেই প্রোডাক্ট থেকে উপকৃত হতে পারে, প্রোডাক্টটি কাস্টমারের জন্য কেন উপযুক্ত ইত্যাদি এসব বিষয়গুলো লিখুন তাহলে কাস্টমার ধারণা পাবে প্রোডাক্ট সম্পর্কে। প্রোডাক্ট ফিচার তো ইচ্ছে করলে যে কোন জায়গা থেকেই জানা যায়। তাই শুধুমাত্র ফিচারের উপরে জোর না দিয়ে আপনি যদি প্রোডাক্ট বেনিফিট এর উপরে জোর দিন তাহলে কাস্টমার আপনার পণ্যটি কিনতে অবশ্যই আকৃষ্ট হবে।

🔸একটি মার্জিত ও আদর্শ প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন লিখতে হলে আপনাকে অবশ্যই অবাঞ্ছিত কিছু লোকাল শব্দ এবং অতিরিক্ত কিছু শব্দ ডেসক্রিপশন থেকে পরিহার করতে হবে। অনেকেই আছেন লেখার সময় আঞ্চলিক শব্দ ব্যবহার করে ফেলেন আবার অনেকেই আছেন যারা লেখার মধ্যে কিন্তু, কেন, হ্যা ইত্যাদি এসব ধরণের শব্দ খুব বেশি পরিমাণে ব্যবহার করে থাকেন। আপনি যখন প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন এ কোন কাস্টমারকে সেই প্রোডাক্ট এর গুনাগুন ও উপকারিতা সম্পর্কে বলছেন তখন আপনি সেখানে ততটুকু শব্দই ব্যবহার করুন যতোটুকু শব্দ প্রোডাক্ট এর ব্যাখ্যা দেওয়ার জন্য উপযুক্ত। বাড়তি কোনো কথা বা শব্দ কোনমতেই ডেসক্রিপশন এ যুক্ত করা যাবে না। আঞ্চলিক শব্দ অথবা সংযুক্তিমূলক শব্দ ব্যবহার করে একটি বাক্য কে অথবা একটি লাইন কে লম্বা করার কারণে প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন টি কাস্টমার দের বিরক্তির কারণ হয়ে উঠতে পারে। 

 

আজ এ পর্যন্তই. আশা করি প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন কি এবং প্রোডাক্ট ডেসক্রিপশন লেখার কিছু সেরা টিপস সমন্ধে আপনাদের বেশ ভালোভাবে অবগত করতে পেরেছি।

 

শাকিল রহমান 

সিনিয়র কনটেন্ট রাইটার 

টিম “LIKHBO”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *